শুক্রবার, ১ জুলাই ২০২২ খ্রীষ্টাব্দ | ১৭ আষাঢ় ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

বন্ধুত্বের তুলনায় এক অনন্য ‘ম্যাশ’



স্পোর্টস ডেস্ক:

মাশরাফি বিন মর্তুজা, বাংলাদেশ ক্রিকেটের কিংবদন্তি। তিনি নিজেই নিজের তুলনা। বাংলাদেশ দলের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক তিনি। ২২ গজের সেলুলয়েডে যেমন সুনাম, জনপ্রতিনিধি হিসেবেও ঠিক সমান জনপ্রিয়তা তার। গতকাল সরকারি হাসপাতালের অনিয়ম দেখতে সরাসরি হাসপাতলে গিয়ে হাজির গণমানুষের ‘ম্যাশ’। হাসপাতালের সেবায় অনিয়ম দেখে ১১ জনকে করেছেন শোকজ।

আর দশজনের চেয়ে এখানেই মাশরাফি আলাদা। সবার সঙ্গেই মিশে যেতে পারেন পানির মতো। এবার তিনি আলোচনায় তার বাল্যবন্ধু রবির সাথে গাছতলায় আড্ডা দিয়ে।

নড়াইল শহরে মাশরাফির বাল্যবন্ধু রবি, করেন জুতা সেলাইয়ের কাজ। শহরের চৌরাস্তায় দাড়িয়ে রবির নাম বললে, একনামেই চিনবে সবাই। ম্যাশের শহরের একটি মেহগনি গাছের নিচে বসে সকাল থেকে রাত অব্দি অন্যের পায়ের জুতা-স্যান্ডেল সেলাই বা পালিশ করেই পেট চলে নিজের এবং পরিবারের।

সম্প্রতি একটি ছবি ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, রবি জুতা সেলাই করছেন। পাশেই হুডি আর মাস্ক পরে পায়ের ওপর পা তুলে বসে গল্প করছেন মাশরাফি। তারকা খ্যাতি পেলেও ছোটবেলার বন্ধুদের ভুলে যাননি টাইগারদের এই তারকা। জাতীয় দলের ক্রিকেটার হওয়ার পর থেকে নিজ এলাকায় পা রাখলেই নড়াইল শহরের চৌরাস্তা মোড়ে মেহগনি গাছের নিচে বসে জুতা সেলাই করা রবি দাসের দোকানে নিত্য হাজিরা দিতেন মাশরাফি। চিত্রটা বদলায়নি সংসদ সদস্য হওয়ার পরেও। এখনও রবি দাসের দোকানে এসে সময় কাটান নড়াইল এক্সপ্রেস।

মাশরাফির আরেক বন্ধু সুমন, পেশায় ঝাড়ুদার। মাশরাফির পুরানো বন্ধুদের মধ্যে এই একজন একসাথে ক্রিকেট খেলা থেকে শুরু করে সব সময় পাশে থাকতেন এবং আছেন। মাশরাফি নড়াইলে আসলে বা ঢাকায় থাকলেও যোগাযোগ রাখেন সকলের সাথে। আর ক্রিকেট বা রাজনীতির কাজের ফাঁকে সময় পেলেই তো চলে আসেন চিত্রা পাড়ের শহরটিতে।

বন্ধু সুমন বলেন, ছোটবেলা থেকেই আমাদের একসাথে চলাফেরা আর খেলাধুলা করে বড় হওয়া। মাশরাফি এখন আমাদের মতো মানুষের সাথে না মিশলেও তো পারে। কিন্তু নড়াইলে আসার আগে মাশরাফি আমাদের সাথে যোগাযোগ করবে, তবেই আসবে।

এটাই তো মাশরাফি। অন্যদের চেয়ে একেবারে আলাদা ধাতুতে গড়া। বাংলাদেশ ক্রিকেটের কিংবদন্তি, মহান জাতীয় সংসদের সদস্য হয়েও যেন অতি সাধারণ একজনই তিনি। ২২ গজে যেমন ছুটে চলেন নড়াইল এক্সপ্রেস হয়ে, তেমনি গণমানুষে মিশে যান চিত্রা পাড়ের কৌশিক হয়েই।