বুধবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

বাংলাদেশে সহিংসতা বন্ধের দাবিতে লন্ডনে বিক্ষোভ



বাংলাদেশে ধ’র্মীয় সংখ্যালঘুদের উপর নি’র্যা’তন, অ’গ্নিসংযোগ ও হ’ত্যাকা’ণ্ডের প্রতিবাদে লন্ডনে বাংলাদেশ হাই কমিশনের সামনে বিক্ষোভ করেছে হিন্দু সম্প্রদায়ের আন্তর্জাতিক ধ’র্মীয় সংগঠন ইসকন, জগন্নাথ হল অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশন গ্রেট ব্রিটেন, সেক্যুলার বাংলাদেশ, সনাতন অ্যাসোসিয়েশনসহ ব্রিটেনের প্রায় অর্ধ শতাধিক ধ’র্মীয় ও মানবাধিকার সংগঠনের প্রতিনিধিরা।

বিশ্বের ১৫০টি দেশে একযোগে প্রতিবাদ কর্মসূচির অংশ হিসেবে শনিবার (২৩ অক্টোবর) দুপুরে বাংলাদেশ হাই কমিশন লন্ডনের সামনে এই বিক্ষোভ কর্মসূচির পালন করে ইসকনসহ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের সংগঠনগুলো। ইংল্যান্ডের বিভিন্ন শহর থেকে শত শত প্রতিবাদকারী ব্যানার ও ফেস্টুন হাতে নিয়ে বাংলাদেশে সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের উপর নি’র্যা’তন বন্ধে স্লোগান দেয়।

সমাবেশে বক্তারা সাম্প্রদায়িক সহিং’সতার বিচারে বিশেষ ট্রাইব্যুনাল গঠন করে দ্রুত বিচার নিশ্চিত করতে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীর কাছে দাবি জানান। সমাবেশে বক্তারা রাষ্ট্রের ধ’র্মনিরপেক্ষ চরিত্রকে ১৯৭২ সালের সংবিধানের পুণঃপ্রতিষ্ঠার পাশাপাশি পাঠ্যক্রম ধ’র্মনিরপেক্ষ ও মানবিক দর্শনের সংস্কার ও ধ’র্মের রাজনৈতিক ব্যবহার নিষিদ্ধের দাবি জানান।

প্রতিবাদ সভায় অংশ নেওয়া মানুষরা স্লোগানের মাধ্যমে হাইকমিশনের সামনে প্রতিবাদ জানায়। এই সময় তারা বলেন, যাদের নি’র্যা’তন করা হয়েছে, তারাও বাংলাদেশের মানুষ। একটি স্বাধীন দেশে কিভাবে হিন্দুরা নির্যাতিত হয়। তার বিচার সরকারকে করতে হবে। হিন্দু সম্প্রদায়ের অনেকে বলেছেন, বাংলাদেশ এখন তাদের আপনজনরা কতটা অনিরাপদ-সেটা তাদের বেশি ভাবাচ্ছে।

প্রতিবাদে অংশ নেওয়া রঞ্জিত কুমা’র জানান, কুমিল্লায় একটি পূজামণ্ডপে কোরআন পাওয়ার পর সাম্প্রতিক সময়ে বাংলাদেশে হিন্দু সম্প্রদায়কে টার্গেট করে সবচেয়ে ভয়াবহ এবং বিস্তৃত সাম্প্রদায়িক হা’মলা হয়েছে। বাংলাদেশে থাকা তার অনেক আত্মীয় বাংলাদেশে নিরাপদে বসবাস করা বা নিরাপত্তার প্রশ্নে শ’ঙ্কা প্রকাশ করেছেন।

সমাবেশে বক্তব্য দেন শুসান্ত দাস গুপ্ত, জুয়েল রাজ, বিধান গোস্বামী, পুদে ষ্পিতা গুপ্তা, সৌমেন দেসহ অনেকে।

সংবাদটি ভালো লাগলে শেয়ার করুন